তালতলীতে ধর্ষণচেষ্টার মামলায় হয়রানির অভিযোগ!

প্রথম পাতা » বরগুনা » তালতলীতে ধর্ষণচেষ্টার মামলায় হয়রানির অভিযোগ!
শুক্রবার ● ১৯ এপ্রিল ২০২৪


তালতলীতে ধর্ষণচেষ্টার মামলায় হয়রানির অভিযোগ!

আমতলী (বরগুনা) সাগরকন্যা প্রতিনিধি॥

ভাসুর আবু বকর হাওলাদারের বিরুদ্ধে ছোট ভাই মনজু মিয়ার স্ত্রী এলমা আক্তার মিথ্যা ধর্ষণ চেষ্টা মামলা দিয়ে হয়রানী করছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার মামলার আসামী আবু বকর হাওলাদার আমতলী সাংবাদিক ইউনিয়ন কার্যালয়ে এমন অভিযোগ করেন। এ ধর্ষণ চেষ্টা মামলার স্বাক্ষী বাদীর বাবা পার্শ্ববতী কলাপাড়া উপজেলার উত্তর চাকামইয়া গ্রামের মোঃ ফোরকান আকন ও  প্রধান স্বাক্ষী  শ্বশুর আব্দুল আজিজ হাওলাদার।  এ মামলায় বাবা ও শ্বশুর স্বাক্ষী হওয়ায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। এ মিথ্যা ও হয়রানীমুলক মামলা প্রতাহারের দাবীতে শুক্রবার এলাকাবাসী প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে। দ্রুত এ মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানান তারা। ঘটনা ঘটেছে তালতলী উপজেলার হুলাটানা গ্রামে।
জানাগেছে, তালতলী উপজেলার হুলাটানা গ্রামের চাচা আব্দুল আজিজ হাওলাদার ও ভাতিজা আবু বকর হাওলাদারের মধ্যে জমির বে-মেয়াদি পাট্টা জমি নিয়ে গত শুক্রবার ( ১২ এপ্রিল) কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায় চাচা ভাতিজার মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জের ধরে চাচা আজিজ হাওলাদার তার ছেলের স্ত্রী এলমা আক্তারকে বাদী করে গত বুধবার বরগুন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় স্বাক্ষী করা হয় শ্বশুর আবদুল আজিজ হাওলাদার, বাবা ফোরকান আকন, শ্বশুর খুকি বেগম ও ভাসুর সোহরাফ হোসেনকে। এমন মামলা দায়ের করায় এলাকার চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। এ মিথ্যা ও হয়রানীমুলক মামলা প্রতাহারের দাবীতে শুক্রবার এলাকাবাসী প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে। দ্রুত তারা এ মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানিয়েছেন।
প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন শাহ আলম হাওলাদার, ইব্রাহিম হাওলাদার, হাবিব মোল্লা, ইউসুফ গাজী,মোতালেব হাওলাদার ও তাহের জোমাদ্দার বলেন, বে-মেয়াদি পাট্টা জমি নিয়ে আজিজ হাওলাদার ও আবু বকর হাওলাদারের মধ্যে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। কিন্তু এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে আজিজ হাওলাদার তার ছেলের স্ত্রী এলমা আক্তারকে দিয়ে মিথ্যা ধর্ষণ চেষ্টার মামলা দায়ের করেছে। এমন মিথ্যা ধর্ষণ চেষ্টা মামলা দ্রুত প্রত্যাহারের দাবী জানান তারা।
মামলার আসামী আবু বকর বলেন, বে-মেয়াদি পাট্টা জমি নিয়ে চাচা আব্দুল আজিজ হাওলাদারের সঙ্গে আমার কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায় হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু ঘটনার ৫ দিন পর আমার বিরুদ্ধে তার ছেলের বউকে দিয়ে মিথ্যা ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ এনে মামলা করেছে।
মামলার স্বাক্ষী বাদীর শ্বশুর আব্দুল আজিজ হাওলাদার জমির পাট্টা দেয়ার ঘটনায় হাতাহাতির ঘটনার কথা স্বীকার করে বলেন, আমার ছেলের স্ত্রীকে আবু বকর কু প্রস্তাব দিত তাই মামলা করেছি।
মামলার বাদী এলমা আক্তার মুঠোফোনে বলেন, যা ঘটেছে তা ফোনে বলা যাবে না। জানতে চাইলে বাড়ীতে এসে জেনে যান বলে ফোনের লাইন কেটে দেন।
তালতলী থানার ওসি মোঃ শহীদুল ইসলাম খাঁন বলেন, এ ঘটনা নিয়ে বাদী ও তার পরিবারের কেউ থানায় আসেনি। তারা থানায় আসার কথা মিথ্যা বলেছে। তারপরও মামলার নথিপত্র হাতে পাইনি। হাতে পেলে প্রয়োজন অনুসারে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

 

 

এমএইচকে/এমআর

বাংলাদেশ সময়: ০:১৪:১৪ ● ৬৮ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ