কলাপাড়ায় পাবলিক টয়লেট সংষ্কারাভাবে জনভোগান্তি!

প্রথম পাতা » পটুয়াখালী » কলাপাড়ায় পাবলিক টয়লেট সংষ্কারাভাবে জনভোগান্তি!
সোমবার ● ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩


কলাপাড়ায় পাবলিক টয়লেট সংষ্কারাভাবে জনভোগান্তি!

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) সাগরকন্যা অফিস॥

পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার লালুয়া ইউনিয়নের বানাতী বাজারে পাবলিক টয়লেট ও ড্রেনেজ সংষ্কারের অভাবে বাজার ব্যাবসায়ীদের ভোগান্তি শেষ নেই। বাজারের দুই প্রান্তে দু’টি পাবলিক টয়লেট থাকলেও দীর্ঘদিন ধরে তার সংষ্কার কাজ বন্ধ রয়েছে। আপর দিকে বাজারের একটি টোল ঘর ও ড্রেন লাইন আটকে ঘর তুলে বসবাস করছে কতিপয় অসাধু ব্যক্তিরা। ফলে, ড্রেনেজ ব্যবস্থার সংষ্কার ও পানি নিষ্কাশনের অভাবে অল্প বৃষ্টিতে জমে থাকে পানি। অতিদ্রুত টয়লেট ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার সংষ্কার করে বাজারটিকে একটি স্বাস্থ্যকর পরিবেশ ফিরিয়ে আনার জন্য স্থানীয় ব্যবসায়ী ও সাধারন মানুষের দাবি।

জানা যায়, উপজেলার লালুয়া ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী বানাতী বাজারটি প্রায় একশ বছরের পুরানো একটি বাজার। পায়রা পোর্ট ও শের-ই-বাংলা নৌঘাঁটি’র মতো দু’টি মেঘা প্রযেক্ট এখানে স্থাপন করায় এ বাজারের গুরুত্ব দিন দিন বেড়েই চলছে। সম্প্রসারন হয়েছে রাস্তাঘাট। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে পাবলিক টয়লেট ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার সংষ্কার না হওয়ায় বাজারে এখন অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের সৃষ্টি হচ্ছে। এতে প্রতিনিয়ত সবাই স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পরছে বলে মনে করছেন স্থানীয় একাধিক ব্যবসায়ী।
বাজারের মিল ব্যবসায়ী হেমায়েত উদ্দিন হিরন মৃধা বলেন, আমরা প্রতিনিয়ত স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পরছি। এখানে দু’টি টয়লেট রয়েছে। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে সংষ্কারের অভাবে এখন তা ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পরেছে।
বাজারের এক ব্যবসায়ী জানান, কয়েকজন লোক বাজারের টোল ঘর ও ড্রেনের লাইন বন্ধ করে বিল্ডিং ঘর তুলে তা দখল নিয়েছে। এতে ড্রেনগুলো আটকে পানি নিষ্কাশন বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে, এখন অল্প বৃষ্টি হলেই তলিয়ে যাচ্ছে বাজারটি।
পশরবুনিয়া থেকে আসা এক মহিলা ক্রেতা জানান, বাজারে দু’টি পাবলিক টয়লেট আছে কিন্তু তা খুবই খারাপ অবস্থায় রয়েছে। এ টয়লেটগুলো ব্যবহার করলে স্বাস্থ্য ঝুঁকির সম্ভাবনা রয়েছে। এগুলো দেখার কি কেউ নেই।

বানাতী বাজার কমিটি’র সভাপতি মো. রুবেল হাওলাদার বলেন, দীর্ঘদিন ধরে সংষ্কারের অভাবে বাজারের টয়লেট দু’টি এখন ব্যবহারের প্রায় অনুপযোগী হয়ে পরেছে। পাশাপাশি ড্রেনেজ ব্যবস্থার সংষ্কারও এখন জরুরী হয়ে পরেছে। এগুলো সংষ্কারে বিষয়ে তিনি যথাযথ কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করেন।
লালুয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শওকত হোসেন তপন বিশ্বাস বলেন,টয়লেট দু’টি আসলেই খুব নাজেহাল অবস্থায় রয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদের আগামী বরাদ্ধ থেকে টয়লেট দু’টি সংষ্কার করার ব্যবস্থা করার চেষ্টা করবো। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.জাহাঙ্গির হোসেন বলেন, বাজারের উন্নয়ন ও জনসাধারনের স্বার্থে পাবলিক টয়লেট ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার সংষ্কার করা জরুরী। তবে, এবিষয়ে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সাথে সমন্বয় করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

এসকেআর/এমআর

বাংলাদেশ সময়: ২১:০৭:৪৯ ● ৬২ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ