ইউপি নির্বাচনতালতলীতে বহিরাগতদের আনাগোনা ও অস্ত্রের মহড়া!

প্রথম পাতা » বরগুনা » ইউপি নির্বাচনতালতলীতে বহিরাগতদের আনাগোনা ও অস্ত্রের মহড়া!
রবিবার ● ১২ জুন ২০২২


ইউপি নির্বাচনে

আমতলী (বরগুনা) সাগরকন্যা প্রতিনিধি॥

 

তালতলী উপজেলার ছয়টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের আর মাত্র ২ দিন বাকী। নির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামীলীগ ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের সমর্থনে বহিরাগত সন্ত্রাসীদের আনাগোনা বৃদ্ধি পেয়েছে। আগত সন্ত্রাসীরা স্ব-স্ব প্রার্থীর সমর্থনে প্রকাশ্যে অস্ত্রের মহড়া দিয়ে ভোটারদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন এমন অভিযোগ চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র ও আওয়ামীলীগ প্রার্থীদের। দ্রুত বহিরাগত ও অস্ত্র প্রদর্শনকারী সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার দাবী জানিয়েছেন প্রার্থীরা।
জানাগেছে, তালতলী উপজেলার ছয়টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন আগামী ১৫ জুন। নির্বাচনের আর মাত্র দুই দিন বাকী। প্রার্থী ও কর্মী সমর্থকদের মধ্যে টান-টান উত্তেজনা বিরাজ করছে। শেষ মুহুর্তে ভোটারদের মন জয় করতে আপ্রাণ চেষ্টা চালাচ্ছেন প্রার্থীরা। ছয়টি ইউনিয়নের মধ্যে পঁচাকোড়ালিয়া, নিশানবাড়িয়া  ও সোনাকাটা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের বিরুদ্ধে বহিরাগত সন্ত্রাসী এনে অস্ত্র দেখিয়ে ভোটারদের ভয়ভীতি প্রদর্শনের অভিযোগ রয়েছে। ওই তিন ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছে পাল্টা-পাল্টি অভিযোগ। আওয়ামীলীগ ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা স্ব-স্ব সমর্থনে বহিরাগত সন্ত্রাসী ভাড়া এনে ভোট কেন্দ্র দখলের চেষ্টায় লিপ্ত রয়েছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। বহিরাগত সন্ত্রাসীরা ইতিমধ্যে প্রকাশ্যে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে ভোটারদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন এবং ভোট কেন্দ্রে যেতে ভোটারদের বারন করছেন এমন অভিযোগ পঁচাকোড়ালিয়া, নিশানবাড়িয়া ও সোনাকাটা ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থীদের। পঁচাকোড়ালিয়া ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী আবু জাফর খোকন হাওলাদার অভিযোগ করেন, আওয়ামীলীগ প্রার্থী মোঃ আব্দুর রাজ্জাক হাওলাদার অন্তত দুই শতাধিক ভাড়াটে সন্ত্রাসী এনে এলাকায় দেশীয় অস্ত্র প্রদর্শন করে আমার কর্মী-সমর্থক ও ভোটারদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন এবং কেন্দ্র দখলের পায়তারা চালাচ্ছেন। আওয়ামীলীগ প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক এমন অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, উল্টো স্বতন্ত্র প্রার্থী সন্ত্রাসী এনে আমার কর্মী সমর্থকদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন। নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী  মোঃ দুলাল ফরাজী অভিযোগ করেন , আওয়ামীলীগ প্রার্থী মোঃ কামরুজ্জামান বাচ্চু নির্বাচনের শুরু থেকেই অস্ত্র প্রদর্শন করে আমার কর্মী-সমর্থক ও ভোটারদের ভয়ভীতি দেখিয়ে আসছে। বশির, সুমন, রেজাউল ও মেহেদীর নেতৃত্বে অন্তত তিন শতাধিক বহিরাগত সন্ত্রাসী এনে আওয়ামীলীগ প্রার্থী এলাকায় অস্ত্রের মহরা দিয়ে ভোটার ও সাধারণ মানুষের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি করছেন। তিনি আরো বলেন, ইউসুফ নামের আমার এক ভোটারকে বাড়ী থেকে তুলে নিয়ে মারধর করে অস্ত্রের ভয় দেখিয়েছেন। আওয়ামীলীগ প্রার্থী কামরুজ্জামান বাচ্চু অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, উল্টো স্বতন্ত্র প্রার্থী ভোট কেন্দ্র দখলে বিভিন্ন এলাকা থেকে সন্ত্রাসী ভাড়ায় এনেছেন। ইউনিয়নের সর্বত্র চলছে আতঙ্ক। সোনাকাটা  ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ ইউনুস ফরাজী অভিযোগ করেন ,আওয়ামীলীগ প্রার্থী সুলতান ফরাজী বহিরাগত সন্ত্রাসী এনেছেন। ওই সন্ত্রাসীরা অস্ত্র দেখিয়ে ভোটারদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন এবং ভোটারদের কেন্দ্রে যেতে বারন করছেন। এমন অভিযোগ অস্বীকার করে আওয়ামীলীগ সুলতান ফরাজী বলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউনুস ফরাজী তার সন্ত্রাসী বাহিনী দিয়ে আমার কর্মী সমর্থক ও ভোটারদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন।
তালতলী থানার ওসি কাজী সাখওয়াত হোসেন অপু বলেন, বহিরাগত সন্ত্রাসী ও অস্ত্র প্রদর্শনের অভিযোগ পেলেও সত্যতা পাওয়া যাচ্ছে না। আইন শৃংখলা বাহিনী তৎপর রয়েছে। সুষ্ঠু নির্বাচনে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।

এমএইচকে/এমআর

বাংলাদেশ সময়: ২৩:২৫:৫৬ ● ১৯৫ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ