পায়রা বন্দর এলাকায় বন উজাড়-পাউবোর জমি দখল, গ্রেফতার-৫

প্রথম পাতা » পায়রা বন্দর » পায়রা বন্দর এলাকায় বন উজাড়-পাউবোর জমি দখল, গ্রেফতার-৫
শুক্রবার ● ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০


---

কলাপাড়া সাগরকন্যা অফিস॥
কলাপাড়ার পায়রা বন্দরের উত্তর দিকে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বেড়িবাঁধের স্লোপ ও ম্যানগ্রোভ প্রজাতির বনাঞ্চল উজাড় করার দায়ে পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। কলাপাড়া থানা পুলিশের সহায়তায় বৃহস্পতিবার দুপুরে কলাপাড়া উপজেলা প্রশাসন, পানি উন্নয়ন বোর্ড ও বনা বিভাগ যৌথ অভিযান চালিয়ে এসময় মাটি কাটার একটি স্কেভেটরসহ (বেকু মেশিন) তাদের গ্রেফতার করেছে।
জানা গেছে, পায়রা বন্দর এলাকায় প্রকাশ্যে বেড়িবাঁধের স্লোপসহ অধিগ্রহণ করা জমি কেটে ও বনাঞ্চল উজাড় করলেও প্রভাবশালীদের ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায়নি। এমনকি এ মাটি পায়রা বন্দরের সামনে স্তুপ করে রাখা হয়েছে। স্থানীয়দের অভিযোগ এমএম বিল্ডার্স পায়রা বন্দরের পাশে কিছু জমি ক্রয় করলেও তাদের দখলে থাকা অধিকাংশ জমি সরকারি। এমনকি নদী পাড়ও দখল কওে ভরাট করা হয়েছে।
কলাপাড়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের সহকারি রাজস্ব কর্মকর্তা মো. তরিকুল ইসলাম জানান, পায়রা বন্দর সংলগ্ন মূল বেড়িবাঁধের স্লোপ কেটে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এমএম বিল্ডার্সের প্রতিনিধিরা মাটি কাটছে এমন অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে সত্যতা দেখতে পেয়ে তাৎক্ষণিক উপজেলা প্রশাসনকে অবহিত করেন। কলাপাড়ার ইউএনও মো. মুনিবুর রহমান ঘটনাস্থলে গিয়ে বেড়িবাঁধ ও বনাঞ্চল ধ্বংসের কারণে তাদের গ্রেফতারের নির্দেশ দেন।
উপজেলা বন কর্মকর্তা মো. আব্দুল সালাম জানান, তাদের প্রায় পাঁচ একর ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চল উজাড় করা হয়েছে। কিছু কাটা গাছ স্লুইসের ও রাস্তার পাশ থেকে উদ্ধার করেছেন। তবে অধিকাংশ গাছ বিক্রি করার প্রমাণ মিলেছে বলে জানালেন এ বনকর্মকর্তা। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।
কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মুনিবুর রহমান জানান, গোয়েন্দা সূত্রে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযোগের সত্যতা পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত পাঁচজনকে আটক করে পুলিশের হাতে সোপর্দ করা হয়েছে।
কলাপাড়া থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম জানান, পায়রা বন্দর সঙলগ্ন বেড়িবাঁধ ও বনাঞ্চল কাটার অভিযোগে পানি উন্নয়ন বোর্ডের সহকারী প্রকৌশলী কুমার স্বস্তিক বাদী হয়ে থানায় মজিবুর রহমান, রফিকুল ইসলাম, রুহুল আমিন গাজী, মহিদুল হক ও আল আমিনকে আসামি করে এজাহার দাখিল করেছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫:৩২:০৭ ● ৪৪৪ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ