আমতলীতে মাছ ধরা সন্দেহে হামলায় ৫জেলে আহত

প্রথম পাতা » বরগুনা » আমতলীতে মাছ ধরা সন্দেহে হামলায় ৫জেলে আহত
শুক্রবার ● ২০ মে ২০২২


আমতলীতে মাছ ধরা সন্দেহে হামলায় ৫জেলে আহত

আমতলী (বরগুনা) সাগরকন্যা প্রতিনিধি॥

পায়রা নদীতে মাছ ধরা সন্দেহে স্থানীয় জেলেদের হামলায় ৫ জেলে আহত হয়েছে। আহত জেলেদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। ঘটনা ঘটেছে আমতলী  উপজেলার খেকুয়ানী এলাকার পায়রা নদীতে শুক্রবার (২০ মে) দুপুরে। গুরুতর আহত জেলে নুর জামালকে পটুয়াখালী মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
জানাগেছে, উপজেলার আঠারগাছিয়া ইউনিয়নের চাউলা গ্রামের মাঝি শাহাবুদ্দিনের নেতৃত্বে ৫ জেলে কবাই লক্ষীপাশা নদীতে মাছ শিকার শেষে শুক্রবার দুপুরে ট্রলার নিয়ে বাড়ী ফিরছিল। ট্রলারটি পায়রা নদীর খেকুয়ানী এলাকার নোঙ্গর করে। পায়রা নদীতে মাছ শিকার সন্দেহে ওই ট্রলারের জেলেদের উপর স্থানীয় জেলে আক্কাস মৃধা, মনির প্যাদা ও আলী হোসেনসহ ৭-৮ জনে হামলা চালায়। তাদের হামলায় নূর জামাল হাওলাদার (৩৫), আলতাফ হোসেন (৪০), অপু প্যাদা (২৫), শাহাবুদ্দিন (৩০) ও জামাল হাওলাদার (২৫) আহত হয়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। ওই হাসপাতালের কর্তৃব্যরত চিকিৎসক গুরুতর আহত নূর জামালকে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেছে।
আহত মাঝি শাহাবুদ্দিন বলেন, গত এক সপ্তাহ পুর্বে কবাই লক্ষীপাশা নদীতে মাছ শিকারে যাই। শুক্রবার  পায়রা নদী হয়ে গ্রামের বাড়ী ফিরছিলাম পথিমধ্যে খেকুয়ানী নামক স্থানে পায়রা নদীতে মাছ শিকার করা জেলে আক্কাস মৃধা, মনির প্যাদা ও আলী হোসেনসহ ৭-৮ জনে আমাদের উপরে অতর্কিত হামলা করেছে। এতে আমার ট্রলারের সকল জেলে আহত হয়েছে। এ ঘটনার বিচার চাই।
অভিযুক্ত জেলে আক্কাছ মৃধা, মনির প্যাদা ও আলী হোসেন হামলার কথা স্বীকার করে বলেন, ভাবছিলাম তারা পায়রা নদীতে মাছ শিকার করতে এসেছে তাই হামলা করেছি।
আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. ফারাহ বলেন, নূর জামালের মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরো বলেন,অপর জেলেদের চিকিৎসা দেয়া হয়।
আমতলী থানার ওসি একেএম মিজানুর রহমান বলেন, খবর পেয়েছি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এমএইচকে/এমআর

বাংলাদেশ সময়: ২১:১২:১৬ ● ২৯ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ