নেছারাবাদে ভাসমান হাসপাতাল “জীবন তরী‘র” চিকিৎসা সেবা শুরু

প্রথম পাতা » পিরোজপুর » নেছারাবাদে ভাসমান হাসপাতাল “জীবন তরী‘র” চিকিৎসা সেবা শুরু
মঙ্গলবার ● ২৯ আগস্ট ২০২৩


নেছারাবাদে ভাসমান হাসপাতাল “জীবন তরী‘র”  চিকিৎসা সেবা শুরু

নেছারাবাদ (পিরোজপুর) সাগরকন্যা প্রতিনিধি॥

ইমপ্যাক্ট “জীবন তরী” ভাসমান হাসপাতাল এখন নেছারাবাদে। বেসরকারী সংস্থা ইমপ্যাক্ট ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশের পরিচালনাধীন ওই হাসপাতালটি ১৯৯৯ সালে যাত্রা শুরু করে এখন পর্যন্ত সেবা প্রদান করে আসছেন। বর্তমানে পিরোজপুরের নেছারাবাদ উপজেলার ছারছিনা দরবার শরীফ সংলগ্ন সন্ধ্যানদীর তীরে অবস্থান করছেন। এর পূর্বেও “জীবন তরী” ভাসমান হাসপাতাল নেছারাবাদে কয়েক বছর সেবা দিয়েছে।
মঙ্গলবার (২৯ আগস্ট) সকাল থেকে চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম শুরু করেছে। ৫০ টাকায় চিকিৎসা সেবা পাচ্ছেন রোগীরা। আছে টিকেট কাউন্টার। রোগীদের বসার জন্য রয়েছে ব্যবস্থা। সরকারি ছুটি ও শুক্রবার ব্যতীত প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলে চিকিৎসা সেবা। হাসপাতালের প্রশাসক মোহাম্মদ রুহুল আমিন জানান, ১৯৯৯ সালে নদী অববাহিকা এলাকায় দরিদ্র, অতি দরিদ্র রোগীদের স্বল্পমূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদানের লক্ষ্যে বেসরকারি ভাবে এ হাসপাতালটি চালু হয়। তিনি আরো জানান, ভাসমান এ হাসপাতালে স্বল্পমূল্যে চক্ষু, নাক, কান, গলা রোগীদের চিকিৎসা করা হয়। হাসপাতালে বিশেষজ্ঞ সার্জন দ্বারা অপারেশন এবং হাড়জোড়া, হাড়ভাঙ্গা পঙ্গু, জন্মগত ঠোঁটকাটা-তালুকাটা রোগীদের চিকিৎসা ও প্লাষ্টিক সার্জারিসহ অন্যান্য চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়। ভাসমান এ হাসপাতালে চার জন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, তিনজন কনসালট্যান্ট ও চার জন নার্সসহ ৩১ জনের একটি টিম সার্বক্ষনিক কাজ করে থাকেন। ভাসমান এ হাসপাতালে জটিল রোগী আনা ও  নেয়ার জন্য সার্বক্ষনিক নৌপথে স্পীডবোড ও সড়ক পথে অ্যাম্বুলেন্স প্রস্তুত রয়েছে। এছাড়াও এ হাসপাতালে প্রতিবন্দ্বীতার বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষে ধাত্রী প্রশিক্ষণ, স্বাস্থ্যকর্মী প্রশিক্ষণ ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা রয়েছে। হাসপাতাল সুত্র জানায়, ইমপ্যাক্ট জীবন তরী ভাসমান হাসপাতালটি এখানে তিন মাস অবস্থান করে রোগীদের চিকিৎসা সেবা প্রদান করবে।

 

 

 

 

আরএ/এমআর

বাংলাদেশ সময়: ২১:২৩:৪৩ ● ১৯০ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ