মালেয়শিয়ায় দুর্ঘটনায় নিহত আল আমিনের বাড়িতে শোকের মাতম

প্রথম পাতা » প্রবাস » মালেয়শিয়ায় দুর্ঘটনায় নিহত আল আমিনের বাড়িতে শোকের মাতম
সোমবার ● ৮ এপ্রিল ২০১৯


---

চাঁদপুর সাগরকন্যা প্রতিনিধি॥
মালেয়শিয়ার কুয়ালালমপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৫ বাংলাদেশীর মধ্যে একজনের বাড়ি চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে। তার নাম আল আমিন। উপজেলার গোবিন্দপুর দক্ষিণ ইউনিয়নের চরভাগল গ্রামের মাওলানা আমির হোসেনের তিন ছেলের মধ্যে আল আমিন সবার বড়। মাত্র ৭ মাস আগে পাশের বাড়ির মিলন গাজীর ছেলে রাসেলের সঙ্গে আল আমিন জীবিকার সন্ধানে মালেয়শিয়ার কুয়ালামপুরে যান। গত রোববার রাতে দূর্ঘটনা ঘটার পর সোমবার সকালে আল আমিনের মৃত্যুর সংবাদ তার গ্রামের বাড়িতে পৌঁছে। এ সময় স্বজনরা কান্নায় ভেঙে পড়েন। আশপাশের প্রতিবেশিরা তাদের সান্তনা দিতে ছুটে আসেন। পুরো এলাকায় শোকের মাতম ছড়িয়ে পড়ে।
পরিবারের সদস্যরা জানান, একটু স্বচ্ছলতার জন্য বিভিন্নজনের কাছ থেকে ধার দেনা করে আল আমিনকে বিদেশ পাঠান তারা। এমন পরিস্থিতিতে তার অকাল মৃত্যুতে পরিবারের ওপর এখন যেনো আকাশ ভেঙে পড়ার উপক্রম হলো। নিহতের বাবা মাওলানা আমির হোসেন বলেন, গত বছরের ৮ সেপ্টেম্বর ছেলে আল আমিনকে মালেয়শিয়া পাঠান। এরমধ্যে বেশকিছু টাকাও পাঠিয়েছে আল আমিন। তিনি আরো বলেন, তিন লাখ টাকা অন্যের কাছ থেকে ধার করে ছেলেকে সেখানে পাঠিয়েছি। নিহতের মা আমেনা বেগম কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমার আল আমিনকে তোমরা নিয়ে আসো। প্রতিবেশি মিলন গাজী বলেন, তার ছেলে রাসেলের সঙ্গে আল আমিন মালেয়শিয়া যায়। তিনি আরো জানান, সোমবার ভোরে দুর্ঘটনার সংবাদ পান তারা।
এদিকে, দ্রুত সময়ের মধ্যে আল আমিনের লাশ দেশে নিয়ে আসার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছেন স্বজন ও প্রতিবেশিরা। একই সঙ্গে ক্ষতিপূরণের দাবিও জানান। খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, মালেয়শিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরের কাছের একটি সড়কে বাংলাদেশিসহ আরো কয়েকটি দেশের শ্রমিকরা কর্মস্থলে যাবার পথে বাস দুর্ঘটনার শিকার হয়। এ সময় ৫ বাংলাদেশিসহ ১১জন নিহত হয়। এতে আরো বেশ কয়েকজন আহত রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭:১২:৩৪ ● ৯২৪ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ