লঞ্চ ধর্মঘট: চরম দূর্ভোগে আমতলীর যাত্রীরা

প্রথম পাতা » বরগুনা » লঞ্চ ধর্মঘট: চরম দূর্ভোগে আমতলীর যাত্রীরা
মঙ্গলবার ● ১৬ এপ্রিল ২০১৯


লঞ্চ ধর্মঘট: চরম দূর্ভোগে আমতলীর যাত্রীরা

আমতলী (বরগুণা) সাগরকন্যা প্রতিনিধি॥

১১ দফা দাবীতে লঞ্চ ধর্মঘট মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) থেকে শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার আমতলী লঞ্চঘাট থেকে কোন লঞ্চ ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়নি। এতে দূর্ভোগে পরেছে আমতলী-তালতলী-কলাপাড়া উপজেলা ও পর্যটন কেন্দ্র  কুয়াকাটার কয়েক শত ঢাকামুখী যাত্রী। নিরুপায় হয়ে যাত্রীরা সড়কপথে পরিবহনে ঢাকা যাচ্ছেন। তাতেও পরেছে তারা চরম দূর্ভোগে। অনেক যাত্রীরা ঢাকা না গিয়ে বাড়ী ফিরে গেছেন।
জানাগেছে, নৌ-পথে সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজী, শ্রমিক নির্যাতন বন্ধ, নৌ-যান শ্রমিকদের সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করা ও কর্মস্থলে দূর্ঘটনায় মৃত নৌ-শ্রমিক পরিবারকে ১০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণসহ ১১ দফা দাবী করে আসছিল বাংলাদেশ নৌ-যান শ্রমিক ফেডারেশন। মালিকপক্ষ এ দাবী দীর্ঘদিন ধরে মেনে নেয়নি। এ ১১ দফা দাবী আদায়ের লক্ষে ১৫ এপ্রিল থেকে নৌ-যান শ্রমিকরা অনিদ্দিষ্টকালের ধর্মঘট শুরু করেছে। মঙ্গলবার আমতলী লঞ্চঘাট থেকে কোন লঞ্চ ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়নি। ঢাকার উদ্দেশ্যে লঞ্চ না ছাড়ায় চরম দূর্ভোগে পরেছে আমতলী-তালতলী-কলাপাড়া উপজেলা ও পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটার শত শত যাত্রী। অনেক যাত্রী আমতলী লঞ্চঘাট এসে লঞ্চ না ছাড়ার কারনে বাড়ী ফিরে গেছেন।
মঙ্গলবার বিকেলে আমতলী লঞ্চঘাট ঘুরে দেখাগেছে, টার্মিনালে প্রিন্স অব হাসান-হোসেন-১ লঞ্চ নোঙ্গর করে আছে। যাত্রীরা ঘাটে এসে লঞ্চ না ছাড়ার খবর পেয়ে হতাশ হয়ে বিকল্প পথে ঢাকায় যাচ্ছেন। অনেকে বাড়ী ফিরে গেছেন।
যাত্রী নজরুল ইসলাম, আলমগীর হোসেন ও বাবুল মিয়া বলেন, ঢাকা যাওয়ার জন্য আমতলী লঞ্চঘাটে এসেছিলাম কিন্তু লঞ্চ ছাড়বে না তাই বাড়ী ফিরে যাচ্ছি।
প্রিন্স অব হাসান-হোসেন-১ লঞ্চের ইনচার্জ মোঃ সেরাজুল ইসলাম বলেন, ২০১৫ সালে নৌ-যান শ্রমিকদের জন্য একটি গেজেট পাশ হয়েছে। ওই গেজেট অনুসারে কাউকে বেতন দেওয়া হচ্ছে না। মালিক পক্ষ যে বেতন দিচ্ছেন তা দিয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতন জীবন যাপন করতে হয়। এছাড়াও ১১ দফা দাবীতে নৌ-যান শ্রমিকদের অনিদ্দিষ্টকালের ধর্মঘট শুরু হয়েছে। যতদিন পর্যন্ত মালিক পক্ষ আমাদের দাবী না মেনে নিবেন ততদিন পর্যন্ত আমাদের ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে।
প্রিন্স অব হাসান-হোসেন-১ লঞ্চ মালিক মোঃ হাফিজুর রহমান নৌ-যান  শ্রমিকদের কিছু দাবী যৌক্তিক আর কর্মস্থলে দূর্ঘটনায় মৃত নৌ-শ্রমিক পরিবারকে ১০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণসহ কিছু দাবী অযৌক্তিকের কথা স্বীকার করে বলেন, লঞ্চ মালিক সমিতি, সরকার ও নৌ-যান শ্রমিক পক্ষের আলোচনায় যে সিদ্ধান্ত হয় সেই সিধান্ত মেনে নেয়া হবে।

এমএইচকে/এমআর

বাংলাদেশ সময়: ১৭:৩৬:৩৩ ● ৫৯৬ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ