অসুস্থ ওবায়দুল কাদেরকে নেওয়া হলো সিঙ্গাপুরে

প্রথম পাতা » ব্রেকিং নিউজ » অসুস্থ ওবায়দুল কাদেরকে নেওয়া হলো সিঙ্গাপুরে
সোমবার ● ৪ মার্চ ২০১৯


ফাইল ছবি
সাগরকন্যা ডেস্ক ॥
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে সিঙ্গাপুর নেওয়া হয়েছে। সোমবার বিকেল ৪টা ৭ মিনিটে কাদেরকে নিয়ে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে উড়াল দেয় এয়ার অ্যাম্বুলেন্স। সেতু বিভাগের জনসংযোগ কর্মকর্তা শেখ ওয়ালিদ ফয়েজ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে, ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে সিঙ্গাপুর গেছেন তার স্ত্রী ইশরাতুন্নেসা কাদের ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) নিউরোলজিস্ট অধ্যাপক ডা. আবু নাসের রিজভী। এ বিষয়ে বিএসএমএমইউ’র উপাচার্য কনক কান্তি বড়ুয়া জানান, ওবায়দুল কাদের অসুস্থ হওয়ার পর অধ্যাপক ডা. আবু নাসের রিজভী সার্বণিক খোঁজখবর নেন। তাদের বাসায় যান। বিভিন্ন জায়গায় ছোটাছুটি করেন। তাই মিসেস কাদেরের মতামতে এ চিকিৎসককে সঙ্গে দেওয়া হয়েছে। এর আগে বেলা সোয়া ৩টার পরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতাল থেকে কাদেরকে নিয়ে আইসিইউ ও সিসিইউ সুবিধা সম্বলিত একটি অত্যাধুনিক অ্যাম্বুলেন্স বিমানবন্দরের উদ্দেশে রওনা দেয়। সেসময় বিএসএমএমইউ’র পরিচালক (হাসপাতাল) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. আব্দুল্লাহ আল হারুন সাংবাদিকদের বলেন, সব ধরনের সুবিধা সম্বলিত অ্যাম্বুলেন্সে করে ওবায়দুল কাদেরকে বিমানবন্দরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। সব ধরনের প্রটোকল সুবিধা তিনি পাচ্ছেন। ভারতের প্রখ্যাত হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. দেবী শেঠীর পরামর্শে ওবায়দুল কাদেরকে সিঙ্গাপুর নেওয়া হয়। দুপুরে কাদেরের চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ডের সিদ্ধান্তের পর কাদেরকে সিঙ্গাপুর নেওয়া হবে বলে জানান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপাচার্য ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া।

তখন তিনি বলেন, দেবী শেঠীর পরামর্শে তাকে দ্রুত সিঙ্গাপুর নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে। গত রোববার সন্ধ্যা থেকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্স প্রস্তুত রয়েছে। এদিকে ভারতের ব্যাঙ্গালুরু থেকে কলকাতা হয়ে দুপুর ১টার দিকে ঢাকায় পৌঁছান ডা. দেবী শেঠী। দুপুর দেড়টার দিকে কালো রঙের একটি প্রাইভেটকারে করে বিএসএমএইউ-তে প্রবেশ করেন দেবী শেঠী। এর আগে গত রবিবার রাতে সংবাদ সম্মেলনে ডা. কনক কান্তি বলেছিলেন, ওবায়দুল কাদেরের শারীরিক অবস্থা আগের চেয়ে ভালো। তিনি হাত-পা নাড়ছেন, প্র¯্রাব হচ্ছে, যেটা দুপুরের দিকে একেবারে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। তার অবস্থা এখন উন্নতির দিকে। এছাড়া উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রথমে তাকে সিঙ্গাপুর নেওয়ার চিন্তা করা হলেও পরে সেখান থেকেই ঢাকায় আসা মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের চিকিৎসকদের পরামর্শে তাকে আপাতত সিঙ্গাপুর না নেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। গত রবিবার ভোরে ফজরের নামাজের পর হঠাৎ শ্বাস-প্রশ্বাসে সমস্যা দেখা দিলে ওবায়দুল কাদেরকে বিএসএমএমইউতে ভর্তি করা হয়। প্রথমে নিবিড় পর্যবেণ কেন্দ্রে (আইসিইউ) নেওয়া হলেও পরে হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটের (সিসিইউ) ২ নম্বর বেডে রাখা হয় তাকে। এনজিওগ্রামে কাদেরের হার্টে তিনটি ব্লক ধরা পড়েছে।

কাদেরকে দেখলেন ফখরুল: সঙ্কটাপন্ন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে দেখতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে যান বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ ও আবদুল মঈন খানও তার সঙ্গে ছিলেন। বিএনপি নেতারা গত রোববার রাত ১০টার কিছুণ আগে হাসপাতালের ‘ডি’ ব্লকে এলে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম ও উপ দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া তাদের নিয়ে ভেতরে যান।

ঘুরে এসে মওদুদ আহমদ সাংবাদিকদের বলেন, উনাকে (ওবায়দুল কাদের) ঘুম পাড়িয়ে রাখা হয়েছে। আমরা ওঁর স্ত্রীর সাথে কথা বলেছি। চিকিৎসকদের কাছ থেকে তার চিকিৎসার খোঁজ-খবর নিয়েছি। বিএনপি মহাসচিব হাসপাতালে চিকিৎসকদের কাছে ওবায়দুল কাদেরের সর্বশেষ অবস্থা সস্পর্কে খোঁজ-খবর নেন। ওবায়দুল কাদের যেন দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠেন সেজন্য দলের প থেকে দোয়া করার কথা জানান মওদুদ আহমদ।

এফএন/কেএস

বাংলাদেশ সময়: ১৮:১৬:০৫ ● ৫২৩ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ