পিরোজপুরে জেলা পরিষদের ৫৩প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র দাখিল

প্রথম পাতা » পিরোজপুর » পিরোজপুরে জেলা পরিষদের ৫৩প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র দাখিল
বৃহস্পতিবার ● ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২


পিরোজপুরে জেলা পরিষদের ৫৩প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র দাখিল

পিরোজপুর সাগরকন্যা প্রতিনিধি॥

আগামী ১৭অক্টোবর দেশের ৬১টি জেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বৃহস্পতিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) মনোনয়ন জমাদানের শেষ দিনে পিরোজপুরে চেয়ারম্যান পদে ৬ জন প্রার্থী তাদের মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। পিরোজপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন জেলা মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদিকা এবং পৌর আওয়ামীলীগের সদস্য সালমা রহমান হ্যাপি। বৃহষ্পতিবার বেলা ১১ টায় পিরোজপুর জেলা প্রশাসক ও নির্বাচনের রিটর্নিং অফিসার মোহাম্মদ জাহেদুর রহমানের কাছে  তার  মনোনয়নপত্র দাখিল করা হয়।
এ ছাড়া একই দিন মনোনয়ন পত্র জমা দেন জেলা পরিষদের সদ্য বিদায়ী চেয়ারম্যান,বর্তমান প্রশাসক ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন মহারাজ। বিগত জেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সদস্য সাবেক সাংসদ অধ্যক্ষ মো. শাহ আলমকে পরাজিত করে মহিউদ্দিন মহারাজ বিপুল ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন।  এ ছাড়াও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন জেলার  ভান্ডারিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আবদুল্লাহ আল মাসুদ, নেছারাবাদ উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী মোসা. হাসিনা মনি, সহিদুজ্জামান সিকদার এবং মো. আমির হোসেন।  সাধারণ সদস্য পদে (পুরুষ) ৩৪ জন এবং সংরক্ষিত (নারী) সদস্য পদে ১৩ জন প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. জিয়াউর রহমান খলিফা।
আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী  সালমা রহমান হেপি বলেন, ‘বিজয়ের ব্যাপারে আমি শতভাগ আশাবাদী। চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে আমি জেলা পরিষদের সব সদস্যের নিয়ে তৃণমূল পর্যায়ে সুসম উন্নয়ন করতে চাই’। তিনি  স্বাধীনতা যুদ্ধে  নিহত  তৎকালিন পিরোজপুর মহাকুমা ছাত্রলীগের সভাপতি শহীদ ওমর ফারুকের ছোট বোন ।
অপরদিকে পিরোজপুর জেলা পরিষদের বর্তমান প্রশাসক ও জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন মহারাজ বললেন, ‘আমি গত নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দীতা করেছি, এবারও করব। বিগত নির্বাচনে স্হানীয় সরকারের নির্বাচিত সদস্যরা বিপুল ভোটে আমাকে নির্বাচিত করেছেন। আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার আগে মানুষ জেলা পরিষদের উন্নয়ন সম্পর্কে কিছুই জানত না। বিগত সময়ে আমার কাজে জেলা পরিষদের ভাবমূর্তি অনেক উজ্জ্বল হয়েছে। গ্রাম পর্যায়ে জেলা পরিষদের অনেক উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন হয়েছে। যার সুফল ভোগ করছেন সাধারণ মানুষ। আমি মানুষের পাশে থেকে কাজ করতে চাই। এবং আমি আশাবাদী এবারের নির্বাচনেও আমি বিপুল ভোটে বিজয়ী হব’।
পিরোজপুর জেলার ৫৪টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, ইউপি সদস্য, দুই পৌরসভার মেয়র ও কাউন্সিলর এবং ৭ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানসহ মোট ভোটার ৭৪৭ জন।


আরএইচএম/এমআর

বাংলাদেশ সময়: ২২:১৪:০৫ ● ২৭ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ