কুয়াকাটায় স্ব-পরিবারে সূর্যাস্ত দেখলেন রাষ্ট্রপতি

প্রথম পাতা » কুয়াকাটা » কুয়াকাটায় স্ব-পরিবারে সূর্যাস্ত দেখলেন রাষ্ট্রপতি
মঙ্গলবার ● ৪ ফেব্রুয়ারী ২০২০


কুয়াকাটায় স্ব-পরিবারে সূর্যাস্ত দেখলেন রাষ্ট্রপতি

কুয়াকাটা (পটুয়াখালী) সাগরকন্যা প্রতিনিধি॥

 

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ স্ব-পরিবারে কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতের বেলাভূমে থেকে সূর্যাস্তের মনোরম দৃশ্য অবলোকন করলেন। তিনি শেষ বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত কুয়াকাটা সৈকতের জিরো পয়েন্টে বসে সূর্যাস্তের মনোমুগ্ধকর দৃশ্য দেখেন। রাতে তিনি পর্যটন ইয়ুথ-ইন মোটেল মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করবেন। সেখানে তিনি রাত্রিযাপন করবেন। রাষ্টপতির কুয়াকাটা আগমনে সমুদ্র সৈকত সহ গোটা এলাকা জুড়ে নিñিদ্র নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হয়।
রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টা ২০ মিনিটের দিকে হেলিকপ্টার যোগে কুয়াকাটায় পৌছেন। তাকে স্বাগত জানান, বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার মোঃ ইয়ামিন চৌধুরী, পুলিশের ডিআইজি মোঃ শফিকুল ইসলাম, পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসক মোঃ মতিউল ইসলাম চৌধুরী, পুলিশ সুপার মইনুল ইসলাম।
রাষ্ট্রপতির সফরসঙ্গী ছিলেন তাঁর সহধর্মিনী মিসেস রাশিদা খানম, পূত্র রাসেল আহমেদ তুহীন ও রিয়াদ আহমেদসহ পরিবারের সদস্যরা। এসময় স্থানীয় সংসদ সদস্য মহিব্বুর রহমান মহিব, রাষ্ট্রপতির সচিব সম্পদ বড়–য়া, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এস এম শামিম উজ জামান, প্রেসসচিব মোঃ জয়নূল আবেদিন, রাষ্টপতির ব্যাক্তিগত চিকিৎসক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মোঃ নিয়ামুল গনি চৌধুরী সহ উর্ধতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
হেলিপ্যাড থেকে মহামান্য রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ তাঁর সফরসঙ্গীসহ সরাসরি পর্যটন ইয়ুথ ইন মোটেলে চলে যান। সেখানে তিনি গার্ড অব অনার গ্রহণ করেন। শেষ বিকেলে রাষ্ট্রপতি কুয়াকাটা সৈকতের জিরো পয়েন্টে গিয়ে সমুদ্র সৈকতের মনোরম দৃশ্য অবলোকন করেন। সৈকতে প্রায় ১ ঘন্টা সময় অতিবাহিত করেন। দেখেন মনলোভা সূর্যাস্তের দৃশ্য। তিনি কুয়াকাটার সৌন্দর্য দেখে মুগ্ধ হন। সৈকত থেকে ফিরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উপভোগ করেন। রাষ্ট্রপতি পর্যটন ইয়ুথ ইনে রাত্রিযাপন করেন। বুধবার ভোরে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে রাষ্টপতির সূর্যোদয় দেখার কথা রয়েছে। বুধবার বিকেল তিনটায় তিনি পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় সমাবর্তন অনুষ্ঠানে যোগদান করবেন। সেখান থেকে ঢাকায় ফিরে যাবেন।

এএইচএ/এমআর

বাংলাদেশ সময়: ১৯:২৯:৩৬ ● ৩৫২ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ