কলাপাড়ায় চাঁদা না দেয়ায় মারধরের অভিযোগ!

প্রথম পাতা » পটুয়াখালী » কলাপাড়ায় চাঁদা না দেয়ায় মারধরের অভিযোগ!
মঙ্গলবার ● ১৬ এপ্রিল ২০২৪


কলাপাড়ায় চাঁদা না দেয়ায় মারধরের অভিযোগ!

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) সাগরকন্যা অফিস॥

পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার মহিপুর ইউনিয়নের নিজামপুর গ্রামে চাঁদার দাবীতে আ: ছালাম হাওলাদার (৫৬) কে মারধরের ঘটনা ঘটেছে। এবিষয়ে ভূক্তভোগী ছালাম হাওলাদার বাদী হয়ে হাবিব চৌকিদারসহ ১১ জনকে আসামী করে মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) কলাপাড়া বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছেন। আসামীদের সবার বাড়ি মহিপুর ইউনিয়নের নিজামপুর গ্রামে।

মামলা সূত্রে জানা যায়,বাদী ছালাম হাওলাদারের বাড়ি ও আসামীদের বাড়ি একই গ্রামে। তারা পরস্পর প্রতিবেশী। বাদীর আর্থিক অবস্থা ও সামাজিক মর্যাদা ভালো দেখে আসামীদের চক্ষুশোল হয়ে ওঠে। বাদীকে তাদের সাথে শুটকী মাছের ব্যবসা করার জন্য টাকা দিতে বলে। কিন্তু আসামীদের স্বভাব চরিত্র ও লেনদেন ভালো না হওয়ায় বাদী ছালাম হাওলাদার ব্যবসা করতে দ্বিমত জানান। এতে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। আসামীদ্বয় একজোট হয়ে তার কাছে ৫ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে। গত ৮ এপ্রিল সোমবার বেলা ২ টার দিকে ভূক্তভোগী ছালাম হাওলাদার জহুরের নামাজ আদায় করে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওয়ানা করেন। ওই সময় আসামীদ্বয় একত্রিত হয়ে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তার পথ রোধ করে। তাকে লোহার রড ও বাশের লাঠি দিয়ে পিঠিয়ে গুরুত্বর রক্তাক্ত ও জখম করে। এসময় তার সাথে থাকা ১ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা প্রধান আসামী হাবিব চৌকিদার ছিনিয়ে নেয়। ডাকচিৎকারে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি ও তাদের দাবীকৃত টাকা দেয়ার জন্য হুমকী প্রদান করে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তী করেন।

মহিপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, মামলার কপি হাতে পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

 

এসকেআর/এমআর

বাংলাদেশ সময়: ২১:২৮:০৮ ● ৩৭ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ