‘৭৫ পরবর্তী সরকারগুলো মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী বাংলাদেশ গড়তে চেয়েছিল’-এমপি মুহিব

প্রথম পাতা » পটুয়াখালী » ‘৭৫ পরবর্তী সরকারগুলো মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী বাংলাদেশ গড়তে চেয়েছিল’-এমপি মুহিব
শনিবার ● ২৮ জানুয়ারী ২০২৩


‘৭৫ পরবর্তী সরকারগুলো মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী বাংলাদেশ গড়তে চেয়েছিল’-এমপি মুহিব

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) সাগরকন্যা অফিস॥

জাতীয় সংসদের প্রতিরক্ষা বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও ১১৪, পটুয়াখালী -৪ আসনের সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ মোঃ মহিববুর রহমান এমপি বলেছেন,’৭৫ পরবর্তী সময়ে জিয়া, এরশাদ ও খালেদা জিয়া বাংলাদেশকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তুলতে চেয়েছিল। সেই সময় বাংলাদেশের উন্নয়ন থমকে দাঁড়িয়ে ছিল। পরবর্তীতে বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরতœ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় এসে দেশকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় গড়ে তোলে। এবং অভূতপূর্ব উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় দেশ আজ ডিজিটাল বাংলাদেশ থেকে স্মার্ট বাংলাদেশের  দ্বারপ্রান্তে।
শনিবার (২৮ জানুয়ারি) দুপুরে পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় উপজেলা কৃষক লীগ ও পৌর কৃষক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমপি মহিব এসব কথা বলেন।’

উপজেলা কৃষক লীগের আহ্বায়ক আখতাউর রহমান হারুনের সভাপতিত্বে এমপি মহিব আরও বলেন,’একমাত্র শেখ হাসিনার সরকার দেশে উন্নয়নে সম অধিকার প্রতিষ্ঠা করেছেন। এক সময়ের অবহেলিত দক্ষিণাঞ্চল আজ উন্নয়নের রোল মডেল। পদ্মা সেতু, পায়রা সমুদ্র বন্দর, পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র, পায়রা সেতু, শের-ই বাংলা নৌ-ঘাঁটি, সাবমেরিন ল্যান্ডিং স্টেশন, শেখ জামাল, শেখ কামাল, শেখ রাসেল ও  শহীদ নজরুল ইসলাম সেতু দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহার। তাই আগামী ২৪ সালের জানুয়ারিতে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকাকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করতে আপনারা কৃষকলীগের প্রতিটি নেতাকর্মী মানুষের দ্বারে দ্বারে গিয়ে এসব অভূতপূর্ব উন্নয়নের চিত্র সাধারন মানুষের সামনে তুলে ধরুন। যাতে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার দেশকে স্মার্ট বাংলাদেশ হিসেবে গড়ে তুলতে পারে।’

কৃষক লীগের ত্রি-বার্ষিক এ সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কৃষক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির বরিশাল বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট গাজী জসীম উদ্দীন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মোতালেব তালুকদার, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অধ্যক্ষ ফাতেমা আক্তার রেখা, পৌরসভার মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি বিপুল চন্দ্র হাওলাদার প্রমূখ। সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা কৃষক লীগের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সরদার সোহরাব হোসেন। এর আগে সকালে সম্মেলন উদ্বোধন করেন জেলা কৃষক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ কাজী আলী হোসেন।

ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে ডেলিগেট কাউন্সিলরদের মতামতের ভিত্তিতে মোঃ আখতাউর রহমান হারুনকে সভাপতি ও এস এম মর্তুল্লা সৌরভকে সম্পাদক  করে উপজেলা কৃষক লীগ এবং দোলন ঢালীকে সভাপতি ও ইব্রাহিম খলিলকে সম্পাদক করে পৌর কৃষক লীগের কমিটি ঘোষণা করা হয়।


এমবি/এমআর

বাংলাদেশ সময়: ২০:৫৭:৪৪ ● ১৩৯ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ