বৈরী আবহাওয়ায় ট্রলার ডুবি চরফ্যাশনের নিখোঁজ ৮জেলের সন্ধান মেলেনি !

প্রথম পাতা » ব্রেকিং নিউজ » বৈরী আবহাওয়ায় ট্রলার ডুবি চরফ্যাশনের নিখোঁজ ৮জেলের সন্ধান মেলেনি !
বৃহস্পতিবার ● ১১ আগস্ট ২০২২


চরফ্যাশনের নিখোঁজ ৮জেলের সন্ধান মেলেনি !

চরফ্যাশ (ভোলা) সাগরকন্যা প্রতিনিধি॥

চরফ্যাশনে ইউসুফ মাঝির মালিকানাধীন ট্রলার ডুবির ঘটনায় তিনদিন অতিবাহিত হলেও সন্ধান মেলেনি ৮ জেলের। এতে জেলে পরিবারগুলোতে চলছে শোকের আহাজারি।
ট্রলার দুর্ঘটনায় নিখোঁজ রয়েছেন কারও বাবা, কারও সন্তান, কারও বা স্বামী। পরিবারের একমাত্র উপর্জনক্ষম ব্যক্তিকে না পেয়ে শোকে বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছেন পরিবারগুলোর সদস্যরা। স্বজনদের কান্নায় ভারী হয়ে উঠেছে চরফ্যাশনের দুই ইউনিয়নের কয়েক গ্রাম।
ট্রলার ডুবির দুর্ঘটনায় ইউসুফ মাঝিসহ ৫জেলে জীবিত উদ্ধার হলেও নিখোঁজ ৮জেলের পরিবারে আতঙ্ক-উৎকন্ঠা বেড়ে গেছে। নিখোঁজরা জীবিত ফিরবেন, এমন আশা ও অপক্ষায় দিন কাটাচ্ছেন জেলে পরিবারগুলো।
নিখোঁজ জেলেরা হলেন, দক্ষিণ আইচা থানার চরমানিকা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের আবু পাটোয়ারীর ছেলে মো. রাছেল (২৮), ২ নং ওয়ার্ডের মোকলেছুর রহমানের ছেলে মো. তছলিম (৩০), ৬ নং ওয়ার্ডের মো. জাফরের ছেলে মো. ইসমাইল (৩১), ৮নং ওয়ার্ডের আঃ মন্নান আখনের ছেলে
আঃ রহমান আখন (৪০), ও নাছির মাঝীর ছেলে আঃ মন্নান (৩৪), শশীভূষণ থানার সুলপুর ইউনিয়ন ৫নং ওয়ার্ডের সুলতান আহমেদ মল্লিকের ছেলে নাজু( ৫০), মো. আক্কেল আলী বেপারীর ছেলে মো. ছাদেক(৪২), ৯নং ওয়ার্ডের আবু হাওলাদারের ছেলে মো. জুয়েল( ২৯)।
এদিকে চরমানিকা ইউনিয়ন ৬নম্বর ওয়ার্ডের নিখোঁজ জেলে ইসমাইল এর মা শাহিনূর বেগম কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন, আমার ছেলের ৩জন ছেলে মেয়ে রয়েছে। আমার ছেলে নদীতে মাছ ধরেন। ওই টাকায় আমার ছেলের সংসার চলে। কিন্তু বঙ্গোপসাগরে ট্রলার ডুবির ঘটনায় তিনদিন হলো আমার ছেলের সন্ধান পাইনি। আমার বউ এবং নাতি-নাতিনদেরকে কে দেখবে। সরকারের কাছে আমার ছেলের জীবিত অথবা মৃত ফেরৎ চাই। আমার ছেলের চিন্তায় আমাদের পুরো পরিবার অসহায় হয়ে পড়েছে। নিখোজ জেলেরা বেঁচে আছেন কিনা, তাও জানা নেই পরিবারগুলোর।
চরফ্যাশন উপজলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আল নেমান বলেন, নিখোঁজ জেলেদের উদ্ধারের জন্য কোস্টগার্ডকে বলা হয়েছে। বৈরী আবহাওয়ার কারণে ঘটনাস্থলে যাওয়া সম্ভব হচ্ছেনা। তবে আবহাওয়া ঠিক হলে খুব দ্রুতই উদ্ধার অভিযানে যাবে কোষ্টগার্ড। তিনি আরও বলেন, নিখোঁজ জেলে পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার ব্যাপারে জেলা প্রশাসনকে অবহিত করা হয়েছে।
উল্লেখ্য যে, গত (৯ আগষ্ট) মঙ্গলবার বিকালে চরমানিকা ইউনিয়ন ৭নং ওয়ার্ডের ইউসুফ মাঝি’র মালিকানাধীন মাছ ধরার ট্রলারটি বৈরি আবহাওয়ায় ঢেউয়ের কবলে পড়ে পায়রা বন্দর সংলগ্ন গভীর বঙ্গপসাগরে ১৩জেলেসহ ট্রলারটি ডুবে যায়।

এএইচ/এমআর

বাংলাদেশ সময়: ২০:৩৭:৪৫ ● ৩৭ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ