নাজিরপুরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের লোহার গেট বিক্রি!

প্রথম পাতা » পিরোজপুর » নাজিরপুরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের লোহার গেট বিক্রি!
শুক্রবার ● ২১ জানুয়ারী ২০২২


নাজিরপুরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের লোহার গেট বিক্রি!

নাজিরপুর(পিরোজপুর)সাগরকন্যা প্রতিনিধি॥

 

পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মসজিদ সংলগ্ন পশ্চিমপার্শ্বের লোহার গেট বিক্রি করে দিলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা। কোনো ধরনের টেন্ডার ছাড়া এমনকি বিক্রির টাকা হাসপাতাল কোষাগারে জমা না দিয়ে তা নিজেই আত্মসাৎ করেছেন।
হাসপাতাল সূত্র জানায়, হাসপাতালের সামনের প্রধান সড়ক সংস্কার ও উঁচু করনের কাজ চলছে। এজন্য গত সোমবার ওই গেট খোলা হয়। পরে তা হাসপাতালের নৈশপ্রহরী মো. কামরুজ্জামানের সহযোগীতায় শ্রমিকরা হাসপাতালের একটি কক্ষে নিয়ে ওই হাসপাতালের জুনিয়র মেকানিক মো. মান্নান গাজীর হেফাজতে রাখেন। পরে সেখান থেকে বিক্রি করে দেয়া হয়। ওই লোহার গেটটির ওজন ছিল প্রায় ৩০০ কেজি।
সরেজমিনে সেখানে গিয়ে দেখা গেছে, ওই রাস্তাটি উঁচু ও সংস্কারের কাজ চলছে। আর এজন্য হাসপাতাল প্রাচীরের ভেতর বালু গিয়ে যাতে নোংরা না হয় সেজন্য হাসপাতারের পশ্চিম পাশের মসজিদ গেটটি খুলে সেখানে ইট দিয়ে আটকে দেওয়া হয়। ওই হাসপাতালের জুনিয়র মেকানিক মান্নান গাজী জানান, গেটটি রুমে রাখা ছিল আর রুমটি তালা মারা ছিল। কিন্তু মঙ্গলবার বড় স্যার (ইউএইচএন্ডএফপিও) ডাক্তার ফজলে বারী আমাকে রুম খুলে দিতে বলেন। আমি রুম খুলে দিলে তিনি তা লোক দিয়ে নিয়ে গেছেন।  পরে শুনেছি তা বিক্রি করে দিয়েছেন। এ ব্যাপারে জানতে ওই কর্মকর্তাকে ফোন দিলে তিনি জানান, ‘আমার বদলির আদেশ হয়েছে। এখন কথা বলা যাবে না’ বলে ফোন কেটে দেন। তবে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ডাক্তার এএইচএম মোস্তফা কায়সার জানান, বিষয়টি নিয়ে আমার কিছু জানা নাই। হাসাপাতের অন্য চিকিৎসকরা না থাকায় আমি নামমাত্র দায়িত্বে আছি।
উল্লেখ্য, ওই কর্মকর্তা কর্তৃক স্থানীয় এক অসহায় ব্যক্তির ছাগল চুরি করে ভুড়ি ভোজের অভিযোগে ওই অসহায় ব্যক্তি একটি মামলা দায়ের করেন। বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়।

এএএইচ/এমআর

বাংলাদেশ সময়: ২০:১৬:৫৭ ● ৫৭ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ