কলাপাড়ায় আ’লীগ নেতার বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা-ভাংচুর ও লুটপাট

প্রথম পাতা » সর্বশেষ » কলাপাড়ায় আ’লীগ নেতার বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা-ভাংচুর ও লুটপাট
শুক্রবার ● ৫ জুলাই ২০১৯


কলাপাড়ায় আ’লীগ নেতার বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলা-ভাংচুর ও লুটপাট

কলাপাড়া (পটুয়াখালী) সাগরকন্যা অফিস॥

কলাপাড়ার নীলগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহসভাপতি রহমান তালুকদারের বাড়িতে ফের সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা হামলা-ভাংচুর ও লুটপাট চালিয়েছে। বাসার নিচতলায় ভাংচুর চালানো হয়। কুপিয়ে তছনছ করা হয় বেড়াসহ আসবাবপত্র। এসব দেখে বাইরে বেরিয়ে আসলে যুবলীগ নেতা পড়শি কবির গাজীর ওপর হামলা চালানো হয়। জীবন রক্ষায় হুমায়ুন কবির গাজী পুকুরে ঝাপ দেয়। তার ঘরের বেড়া কুপিয়ে তছনছ করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার রাত আনুমানিক সাড়ে ১১টার দিকে সশস্ত্র ২০/২৫ সশস্ত্র সন্ত্রাসী হোন্ডার বহর নিয়ে আচমকা হামলা ভাংচুর তান্ডব চালায়। এরা রহমান তালুকদারের ভাড়া  গুদামঘর ভেঙ্গে এসিআই কোম্পানির মালামাল লুটে নেয়। রহমান তালুকদার দোতালয় আশ্রয় নিয়ে রক্ষা পেয়েছে। কলাপাড়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পেছলে সন্ত্রাসীরা সটকে পড়ে। রহমান তালুকদারের অভিযোগ মোস্তফাপুর গ্রামের টোকাই শফিকের নেতৃত্বে নাজমুল, সুমন, সাগর, শাওন. কুদ্দুস, নাজমুলসহ ২০-২৫ জনে নারকীয় তান্ডবে অংশ নেয়। একই এলাকার সত্তার শরীফের নির্দেশে তাকে খুনের উদ্দেশে এমন হামলা চালানো হয় বলেও রহমান তালুকদারের অভিযোগ। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। ইতোপুর্বেও পাখিমারা বাজারে রহমান তালুকদারের ওপর সশস্ত্র হামলা চালানো হয়। ফের সশস্ত্র হামলা-ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনায় আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতাকর্মীসহ সাধারণ মানুষ আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন। কলাপাড়া থানার ওসি মো. মনিরুল ইসলাম জানান, রাতের ঘটনা শুনেই সেখানে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। অপরদিকে সাগরে ট্রলারের মাঝি আলী হোসেন খা, ছেলে জহিরুল খা ও ভাই কামালকে  ৫০ হাজার টাকা চাদার দাবিতে ধরে এনে চাপলী বাজারের সমিতির ঘরে বৃহস্পতিবার দুপুরে দুই ঘন্টা আটকে মারধর করা হয়। জহিরুল জানায় ক্রিকেট খেলার একটি স্টাম্প দিয়ে বেধড়ক পেটানো হয়। এক পর্যায় স্টাম্পটি ভেঙ্গে যায়। দুই ঘন্টা পরে এদের ছেড়ে দেয়া হয়। ধুলাসারের চিহ্নিত হাবিব মৃধার নেতৃত্বে শহিদুলসহ একটি চক্র এমন অপকর্ম করেছে বলে অসংখ্য মানুষের অভিযোগ। গঙ্গমতির সাগরের হাইরের পয়েন্টে জাল দিয়ে মাছ ধরার জন্য একটি প্রভাবশালীমহল ট্রলার প্রতি পঞ্চাশ হাজার টাকা চাদা দাবি করে আসছে বলে জনশ্রুতি রয়েছে।

এমইউএম/এমআর

বাংলাদেশ সময়: ২০:৪১:৩৪ ● ২৭৩ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ