‘ভালো কাজে মনোযোগী হতে হবে’: আঁখি

প্রথম পাতা » বিনোদন » ‘ভালো কাজে মনোযোগী হতে হবে’: আঁখি
শনিবার ● ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৯


---

সাগরকন্যা বিনোদন ডেস্ক॥
জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আঁখি আলমগীর এ সময়ে গান নিয়ে ব্যাপক ব্যস্ত সময় পার করছেন। দীর্ঘ সংগীত ক্যারিয়ারে ধারাবাহিকভাবে অনেক শ্রোতাপ্রিয় গান উপহার দিয়েছেন তিনি। আর স্টেজেও তার চাহিদা ও গ্রহণযোগ্যতা ব্যাপক। সব মিলিয়ে চলতি সময়ে কেমন আছেন? আঁখি বলেন, ভালো। ব্যস্ততার মধ্যেই কাটছে সময়। যদিও বুধবার চকবাজারে ঘটে যাওয়া অগ্নিকাণ্ডে এতগুলো প্রাণ ঝরে যাওয়ায় গভীরভাবে শোকাচ্ছন্ন হয়ে আছি। তাদের সবার জন্য আমাদের অনেক অনেক প্রার্থনা। আর নিহতদের পরিবারও যেন এই শোক কাটিয়ে উঠতে পারে সেই দোয়াই করি।
এবার ভিন্ন প্রসঙ্গে আসি। এখন মূলত কি নিয়ে চলছে আপনার ব্যস্ততা? আঁখি বলেন, শো করে যাচ্ছি নিয়মিত। যেহেতু শীত মৌসুম গেল, তাই শো-এর সংখ্যা অনেক বেশি ছিল। টানা শো করেছি। সত্যি বলতে অনেক বছর ধরেই আমার শো-এর ব্যস্ততা একইরকম যাচ্ছে। মাঝে মধ্যে ক্লান্ত হলেও এই ব্যস্ততাটা আমি উপভোগ করি। এদিকে গত বছর বিভিন্ন গানে অন্য এক আঁখি আলমগীরকে আবিষ্কার করা গেছে। সে সময়ে বেশ কিছু গান প্রকাশ হয়েছে তার। সেসবের মধ্যে আসিফ আকবরের সঙ্গে জুটি বেঁধে ‘টিপটিপ বৃষ্টি’ এবং ‘ওরে পাখি’ শিরোনামের দুটি গান করেছেন তিনি। এ দুটি গানের ভিডিওতে আসিফ ও আঁখির রসায়ন দেখেছেন দর্শকরা। তবে নতুন বছরে এখনো নতুন গান প্রকাশ করেননি এ শিল্পী। অবশ্য জানিয়েছেন খুব শিগগিরই প্রকাশ হবে নতুন গান। এ বিষয়ে তিনি বলেন, স্টেজ ও অন্যান্য ব্যস্ততা অনেক যাচ্ছে। তাছাড়া আমার বেশ কিছু নতুন গান করা আছে। কোম্পানি জানে গানগুলো কবে প্রকাশ হবে। এর বাইরে আরো নতুন কিছু গানের কাজও আছে সামনে। আর গান নিয়ে তাড়াহুড়ো নেই আমার। আমি ভালো মানের গান করতে চাই। এর জন্য অপেক্ষা তো করতেই হবে। সিনেমার গানের কি খবর? আঁখি বলেন, সিনেমার গানও করছি নিয়মিত। সর্বশেষ গেয়েছিলাম ‘একটি সিনেমার গল্প’ ছবিতে। রুনা লায়লা আন্টির সুরে এ ছবিতে গান গেয়েছি আমি। এটা আমার জন্য বড় পাওয়া। এটাই রুনা আন্টির সুর করা আমার প্রথম গান। আর ছবিটিও পরিচালনা করেছেন আমার বাবা। আরো বেশ কিছু চলচ্চিত্রের গান করার কথা চলছে। ব্যাটে বলে মিললে সেগুলো হবে। বর্তমানে মিউজিক ইন্ডাস্ট্রির অবস্থা কেমন মনে হচ্ছে? আঁখি বলেন, আসলে এটা প্রতিযোগিতার যুগ। যে ভালো করছে সে এগিয়ে যাচ্ছে। আর এখন ডিজিটালি গান প্রকাশ হচ্ছে। ইউটিউবে ইচ্ছেমতো যে কোনো গান শোনা ও দেখা যাচ্ছে। তাই গানে প্রতিযোগিতাটাও বেড়েছে। এত গানের ভিড়ে নিজেকে মেলে ধরা সম্ভব না যদি না খুব ভালো কাজ করা হয়। তাই অবশ্যই ভালো কাজের প্রতি মনোযোগী হতে হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭:৩৯:৫১ ● ৫৫৬ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ