তজুমদ্দিনে অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নেই শহীদ মিনার!

প্রথম পাতা » ভোলা » তজুমদ্দিনে অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নেই শহীদ মিনার!
বৃহস্পতিবার ● ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২০


তজুমদ্দিনে অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নেই শহীদ মিনার!

তজুমদ্দিন (ভোলা) সাগরকন্যা প্রতিনিধি॥

বাঙ্গালি জাতির গর্ব ও অহংকারের দিন একুশে ফেব্রুয়ারী। আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস পালনে ও শহীদদের প্রতি সম্মান এবং শ্রদ্ধা জানাতে ভোলার তজুমদ্দিনের অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নেই কোন শহীদ মিনার। কলা গাছ-কাগজ দিয়ে সাজিয়ে অস্থায়ী শহীদ মিনার বানিয়ে কিংবা পাশ্ববর্তী কোন প্রতিষ্ঠানের শহীদ মিনারে ফুল কুড়িয়ে এনে তা দিয়েই ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করছেন শিক্ষার্থীরা। শহীদ মিনার না থাকলেও প্রত্যেক প্রতিষ্ঠানে একুশে ফেব্রুয়ারী পালনের রয়েছে সরকারি নির্দেশনা ।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তজুমদ্দিন উপজেলায় ১১০ টি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ১৫টি মাদ্রাসা, ১৬টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও ৩টি কলেজসহ প্রায় দুইশত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। যার মধ্যে তজুমদ্দিন সরকারী কলেজ, হোসনেআরা চৌধুরী মহিলা কলেজ, শম্ভুপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়, পঞ্চপল্লী মাধ্যমিক বিদ্যালয়, শিবপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার থাকলেও বাকী প্রতিষ্ঠাগুলোতে নেই স্থায়ী মিনার । এই দিবসটি পালনে অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে থাকেনা ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা ও তৎপরতা।
ফারজানা চৌধুরী শাওন বালিকা নিম্ম মাধ্যমিক বিদ্যায়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী সুমাইয়া আক্তার ও ৭ম শ্রেণির ছাত্রী প্রাপ্তি নন্দি বলেন, আমাদের বিদ্যালয়ে শহীদ না থাকায় আমরা ভাষা শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে পাশ্ববর্তী প্রতিষ্ঠানে যেতে হয়। চাঁদপুর ইসলামিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা কামাল মাহমুদ বলেন, আমাদের প্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার নেই বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। তাই প্রতি বছর দিবসটি পালনের জন্য মাদ্রাসা প্রাঙ্গনে শিক্ষার্থীরা কলা গাছ ও রঙ্গিন কাগজ দিয়ে একদিনের জন্য মিনার তৈরী করে।
উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ শওকাত আলী বলেন, প্রত্যেক প্রতিষ্ঠানে দিবসটি অবশ্যই পালন করার জন্য সরকারী নির্দেশনা রয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আশ্্রাফুল ইসলাম জানান, প্রতিষ্ঠান চাইলে নিজেদের বরাদ্ধ থেকে তৈরী করে নিতে পারে। এছাড়া যেসব প্রতিষ্ঠান শহীদ মিনার নির্মানের জন্য আবেদন করবে, আমরা উর্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট সুপারিশ প্রেরণ করবো।

আরএস/এমআর

বাংলাদেশ সময়: ১৮:৩৫:৪৩ ● ৪৮৪ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ