বলিউডে অভিনয় করবেন ব্রিটিশ অভিনেতা কিরণ রায়

প্রথম পাতা » বিনোদন » বলিউডে অভিনয় করবেন ব্রিটিশ অভিনেতা কিরণ রায়
সোমবার ● ২০ জানুয়ারী ২০২০


---

সাগরকন্যা বিনোদন ডেস্ক॥
বলিউডে অভিনয় করতে যাচ্ছেন জনপ্রিয় ব্রিটিশ অভিনেতা কিরণ রায়। রাজপাল যাদবের সাথে তাকে দেখা যাবে “ম্যারেজ অনলাইন” চলচ্চিত্রে।
গত নভেম্বরে শিডিউলে যাওয়ার পরিকল্পনা থাকলেও ছবিটি আর্থিক সংস্থান ও প্রযোজক পরিবর্তনের কারণে একটু বিলম্বিত হয়েছে। তবে, তরুণ অভিনেতা রাই মুম্বাই এবং লস অ্যাঞ্জেলেস উভয় স্থানে তার সফল হওয়ার বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী।
গত বছর মুম্বাইয়ের আইএফএ পুরষ্কারে তিনি ‘আন্তর্জাতিক বর্ষসেরা শিল্পী’ পুরষ্কারে ভূষিত হয়েছিলেন এবং চারুকলা ও বিনোদনের ক্ষেত্রে অবদানের জন্য অল ইন্ডিয়া রেডিওকেও একই পুরষ্কারে ভূষিত করা হয়েছিল।
ইন্ডিয়া এব্রোডকে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে রায় তাঁর ক্যারিয়ার, ভবিষ্যত পরিকল্পনা এবং কীভাবে তিনি যুক্তরাজ্যের পাশাপাশি বলিউড ও হলিউডে তাঁর ক্যারিয়ার বিস্তৃত করার পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা করেন। এলএবাংলা টাইমসের পাঠকদের জন্য সাক্ষাতকারটি তুলে ধরা হলো:
প্রশ্ন: একজন ব্রিটিশ অভিনেতা হিসাবে, আপনি “ম্যারেজ অনলাইন” দিয়ে বলিউডে পা রাখবেন, এই সুযোগটি কীভাবে এলো?
রায়: আমি ভারতে চলে এসেছি, তবে অভিনেতা হিসাবে কাজ করার পর থেকে আমার কাছে টাকা ছিল না। অর্থের খুব টানাপোড়েনে আমি আমার বন্ধু সাজকে ভারত ভ্রমণের জন্য স্পনসর করতে বলি। আমার পরিকল্পনা ছিল, কেউ আমাকে অর্থ না দেওয়া পর্যন্ত আমি সকল রকম চেষ্টা করে যাব। আমি মুম্বাইয়ে প্রতিদিন বাইরে বাইরে ঘুরে বেড়াতাম। সেখানে প্রচুর লোকের সাথে যোগাযোগ করি। সেই পথে অনেক প্রযোজক এবং পরিচালকের সাথে সাক্ষাত করেছি। অবশেষে সলিম খানের সাথে আমার দেখা হয়েছিল, যিনি আমাকে আজীবন কাজ করার সুযোগ দেন। এখন এটা শুনতে খুব সহজ মনে হচ্ছে। কিন্তু নিজেকে তিন মাসের সময়সীমা বেঁধে দিয়ে কিছু একটা করা খুব সহজ ছিল না।

প্রশ্ন: এই প্রস্তাবটি গ্রহণের আগে আপনি কোন ধরণের কাজ করেছেন?

রায়: আমি এই দুর্দান্ত ক্যারিয়ারের অংশ হতে পেরে, উপস্থাপনা এবং অভিনয়ের জগতে নিজেকে  সামিল করতে পেরে, খুব ভাগ্যবান মনে করি। এই পর্যন্ত আমি ৩২ টি গ্র্যান্ড স্পোর্টস, ৫৫ টি শোবিজ শোসহ নিউ ইয়র্ক সিটির ওয়েস্ট এন্ড এবং ব্রডওয়েতে ১০২ টিরও বেশি বড় ইভেন্টে সফলভাবে হোস্ট হিসেবে কাজ করেছি। আশ্চর্যের বিষয়টি হলো- গত আট বছর ধরে আমি বিনামূল্যে কাজ করে যাচ্ছি। কখনই এ সমস্ত কাজের জন্য একটি পয়সাও নেইনি। কারণ আমি ধীরে ধীরে নিজের স্থান তৈরির বিষয়ে আগ্রহী ছিলাম। এমনকি এই ছবিতেও আমি কোন পয়সা নেইনি। তবে একজন ব্যবসায়ী হিসাবে আমি আমার অবস্থান এমন উচ্চতায় তৈরি করছি, যেখানে আমি কয়েক হাজার পাউন্ড উপার্জন করতে পারি।

প্রশ্ন: ‘ম্যারেজ অনলাইন’-এ আপনার চরিত্র সম্পর্কে কিছু বলুন।

রায়: এখানে আমাকে দেখা যাবে খুবই ইর্ষান্বিত এবং আক্রমণাত্মক চরিত্রের একজন মানুষ হিসেবে। যিনি নিজের বোনকে নেট ডেটিংয়ের সমর্থন করেন না। আমার চরিত্রটিতে প্রচুর নেতিবাচক উপস্থাপন রয়েছে।

প্রশ্ন: ছবিটির শুটিং কোথায় হবে? লোকেশন সম্পর্কে কিছু বলুন।
রায়: ছবিটির শুটিং মূলত মুম্বই ও দিল্লিতে।

প্রশ্ন: আপনার ভবিষ্যত পরিকল্পনা কি? বলিউডে আরও কাজ?

রায়: না আমি আমার বন্ধু সাজ ভ্লোগসের পরামর্শ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। তাছাড়া, যুক্তরাজ্যের শিল্প এবং বিনোদন জগতের সাথে লেগে থাকব। আমি ব্রিটিশ এবং এখান থেকেই আমি শুরু করেছি। তবে আমি অনুভব করেছি যে, এই চলচ্চিত্রটি আমার জন্য যথার্থ ছিল। এটি যেভাবে চলছে তাতে আমি খুব সন্তুষ্ট।

প্রশ্ন: আপনি আপনার সাফল্যের পিছনে কার অবদানের কথা বলবেন?

রায়: অবশ্যই আমার পরিবার, আমার মা-বাবা ছাড়া আমি এই রকমভাবে বাইরে গিয়ে কাজ করার সামর্থ রাখতে পারব না।  আমি তাদের প্রতি অত্যন্ত কৃতজ্ঞ।
রায় ‘সোশ্যাল বক্সে’র ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর এবং দক্ষিণ আফ্রিকায় তিনি গত ছয় মাসে ১৩ তম দেশ সফর করেছেন।
খুব সম্প্রতি, একটি পুরষ্কার শোতে বলিউড অভিনেত্রী সোফি চৌধুরী তাকে অভিনন্দন জানিয়েছিলেন, যা তাকে তাঁর ৮০ তম শো হোস্টিংয়ের দিকে নিয়ে যায়, যার মধ্যে বিশ্বকাপ, ফর্মুলা -১, উইম্বলডন এবং লন্ডনের রয়্যাল অ্যালবার্ট হলের ব্রিট পুরষ্কার রয়েছে।

২৭ বছর বয়সী এই যুবক জানান, বলিউডে যাওয়া তার জন্য একটি সুযোগ কিন্তু তার সবসময়ই একটি বিকল্প পরিকল্পনা থাকে। ব্রিটিশ ইউটিউবার Saj Vlogs এর সমর্থনে রাই মুম্বাই যাচ্ছেন এবং ভদ্রলোক সফল হওয়ার জন্য রাইকে পরামর্শের সাথে তার ভ্রমণের জন্য অর্থও ব্যয় করেছিলেন।
ভ্লগস জানান “আমি কিরণকে সফল হিসাবে পেতে চেয়েছিলাম এবং সে কারণেই আমি তাকে তার স্বপ্ন পূরণের জন্য অর্থ দিয়েছি”। তিনি আরও বলেন “আমরা সকলেই তুচ্ছ বিষয়ে অর্থ ব্যয় করি। তবে আমি তাকে যে অর্থ দিয়েছিলাম, তার প্রতিটি পয়সা কাজে লেগেছে”।

শ্রীলঙ্কার একটি ছবিতে মুখ্য ভূমিকা অর্জনের পরে রাই খ্যাতি অর্জন করেন। যদিও তিনি যে ভাষার সিনেমার জন্য চিত্রায়িত হচ্ছিলেন, সে ভাষাটি তাঁর আত্মস্থ ছিল না। তবুও নটিংহাম-ভিত্তিক এই অভিনেতা যখন শ্রীলঙ্কায় চিত্রগ্রহণের কাজে আসেন; নির্মাতারা তাকে জানান যে, তার সিংহলি যথেষ্ট ভাল নয়। এবং তারা তাকে ফিলে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছিল।

সেই অভিজ্ঞতার কথা বলতে গিয়ে রায় বলেন, “আমি প্রত্যাখ্যান করতে অভ্যস্ত। খুব ছোটবেলা আমার মা যেমন আমাকে ছেড়ে চলে যান, তেমনি লোকেরা আমাকে ত্যাগ করেছিল। এ জন্যই আমি এতদূর আসতে পেরেছি। কারণ কিছুই আমাকে আঘাত করে না।

রায় এখনো পর্যন্ত ৩৪ টি বড় স্পোর্টস, ১৫ টি ফিল্ম ফেস্টিভাল এবং ৬০টি শোবিজ ইভেন্টসহ ১০০ টির বেশি অনুষ্ঠানে হোস্ট হিসেবে কাজ করেন। সেইসাথে ৭০০টি সংবাদপত্র এবং ১০০ ফ্যাশন ম্যাগাজিনে সম্পাদকীয় হন এই অভিনেতা। তিনি ভোগ ইউএস ডেম আনা উইন ট্যুরের প্রধান সম্পাদক এবং প্রিন্স রিচার্ডের সাথে সাক্ষাৎ করার জন্য আমন্ত্রিত হয়েছেন (ডিউক অফ গ্লোস্টার) ) ব্রিটিশ রয়েল পরিবার থেকে।

বাংলাদেশ সময়: ১১:৩২:১৯ ● ৮০৬ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ