নাজিরপুরে ৫ লাখ টাকায় স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনা রফা!

প্রথম পাতা » পিরোজপুর » নাজিরপুরে ৫ লাখ টাকায় স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনা রফা!
শনিবার ● ১৮ মার্চ ২০২৩


নাজিরপুরে ৫ লাখ টাকায় স্কুল ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনা রফা!

পিরোজপুর সাগরকন্যা প্রতিনিধি॥

পিরোজপুরের নাজিরপুরে চৌকিদার ও মেম্বারদের মধ্যস্তাতায় মোটা অংকের টাকার  বিনিময় ধর্ষনের ঘটনা রফাদফা করা হয়েছে। রফাদফার ওই ঘটনাটি ঘটেছে গত বৃহস্পতিবার (১৬ মার্চ) সন্ধ্যায় উপজেলার শ্রীরামকাঠী ইউনিয়নের ভীমকাঠী গ্রামে।

জানা গেছে, গত ৭ মার্চ দুপুরে ওই গ্রামের এক স্কুল ছাত্রীকে নিজ বাড়িতে অবস্হান কালে  স্হানীয় রাখাল বেপারীর ছেলে নিপু বেপারী, বাবুল ঘরামীর ছেলে শান্ত ঘরামী, বিবেক বেপারীর ছেলে মিঠু  বেপারী , জাদব মন্ডলের ছেলে জয় মন্ডল, জয় মজুমদার, দিপ বেপারী ও সমর সহ ১০-১২ তরুন তাকে মুখে রং দেয়। এসময় কেহ তাকে ধর্ষন ও অন্যরা ধর্ষনের চেষ্টা করে। আর ওই ধর্ষনের বাঁধা দিলে তারা তাকে মারধর করে বলে সে চিকিৎসককে জানায়। এমন  বক্তব্য দিয়ে সে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নেয়। পরে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায়   ঘটনাটি ওই স্কুল ছাত্রীর খালাতো ভাই  জেলার সদর উপজেলা সিকদার মল্লিক ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশ অপু, শ্রীরামকাঠী ইউনিয়নের মেম্বার আকবর মোল্লা এবং মনোজ কান্তি সহ ৫ জনের  মধ্যস্তাতায় ৫ লাখ টাকার বিনিময় মিটিমাট করা হয়।
এ ব্যাপারে তথ্য জানতে ইউপি সদস্য আকবরের কাছে একাধীকবার ফোরন দিলেও তিনি তা রিসিভ করেন নি।

তবে ইউপি সদস্য মোনজ কান্তি জানান, বিষয়টি মিটমাট করে দেয়া  হয়েছে। কোন টাকা লেনদেনের তথ্য আমি জানি না।

ওই স্কুল ছাত্রীর খালাতো ভাই গ্রাম পুলিশ অপু এ প্রতিনিধিকে বলেন  মিটমাটের খবর আপনাকে পরে জানাবো বলে ফোন কেটে দেন। পরে আর ফোন ধরেন নি।
এ বিষয়ে নাজিরপুর থানার অফিসার ইন চার্জ (ওসি) মো. হুমায়ুন কবির জানান, ওই মেয়েটির পক্ষ থেকে ঘটনার পর বিভিন্ন সময়  ধর্ষন ও শ্লিলতাহানীর পৃথক পৃথক কথা বলা হয়েছে। কিন্তু‘ তাকে মামলা দিতে বলা হলেও সে রহস্য জনক কারনে কোন মামলা দেয় নি। তার পরিবারের সাথে একাধীকবার  যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তারা এড়িয়ে গেছেন।


আরএইচএম/এমআর

বাংলাদেশ সময়: ২১:৪৮:৩৪ ● ২০৯ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ