দুমকিতে কলেজ গভর্নিংবডির সভাপতির রাজস্মিক সংবর্ধনা!

প্রথম পাতা » পটুয়াখালী » দুমকিতে কলেজ গভর্নিংবডির সভাপতির রাজস্মিক সংবর্ধনা!
রবিবার ● ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২


দুমকিতে কলেজ গভর্নিংবডির সভাপতির রাজস্মিক সংবর্ধনা!

দুমকি(পটুয়াখালী) সাগরকন্যা প্রতিনিধি॥

পটুয়াখালীর দুমকিতে মুরাদিয়া আজিজ আহম্মেদ কলেজ গভর্নিংবডির সভাপতি এড. হারুন অর রশীদ হাওলাদার পিএইচডি’কে রাজস্মিক সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। রবিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১১টায় কলেজ প্রাঙ্গনে আয়োজিত এক অনারম্বর অনুষ্ঠানে বিভিন্ন স্কুল-কলেজ শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে এ উষ্ণ অভ্যর্থনা জানানো হয়।
কলেজ মাঠে বর্ণিল সাজের সুবিশাল প্যান্ডেলে অধ্যক্ষ মো. আহসানুল হকের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে দুমকি উপজেলা আ’লীগের সভাপতি মো. আবুল কালাম আজাদ, সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান আকন সেলিম, আঙ্গারিয়া ইউপি চেয়ারম্যান সৈয়দ গোলাম মর্তুজা, শ্রীরামপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. আমিনুল ইসলাম  সালাম, পাংগাশিয়া ইউপি চেয়ারম্যান এড. গাজী মো. নজরুল ইসলাম, লেবুখালী ইউপি চেয়াম্যান শাহআলম হাওলাদার বিশেষ অতিথি ছিলেন। অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন, উপজেলা আ’লীগ নেতা মো. আবুল হোসেন, কেএম শহিদুল ইসলাম খলিল, শাহআলম মাষ্টার, মাহফুজুর রহমান প্রমুখ।
আলোচিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠান জাঁকজমকপূর্ণ করতে কলেজ ক্যাম্পাসের প্রবেশ সড়কে নির্মাণ করা হয় অন্তত: ৫/৬টি তোড়ণ। আশ-পাশের বিভিন্ন স্কুল, মাদ্রাসা ও কলেজ শিক্ষার্থীদের প্রবেশ সড়কের দু’পাশের লাইনে দাড় করিেেয় সুসজ্জিত ব্যান্ডদলের বাদ্যযন্ত্রের তালে তালে ফুল ছিটিয়ে প্রধান অতিথিকে উষ্ণ সংবর্ধণা দিয়ে অনুষ্ঠান প্যান্ডেলে স্বাগত জানানো হয়। অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি বর্গের পাশাপাশি অংশগ্রহণকারি সহা¯্রাধিক মানুষ্যকে দু’তিন ক্যাটাগরিতে আপ্যায়নও করা হয়। খাবার মেন্যুতে বিভিন্ন প্রজাতির মাছ, মুরগি, খাশি, গরুর মাংস দধি, মিষ্টি ইত্যাদি। অভিযোগ ওঠেছে, অনুষ্ঠানের লোকসমাগম বাড়াতে উপজেলার সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক, চরবয়েড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়, জয়গুণনেছা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, সাবেরা আজিজ বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মুরাদিয়া বশিরিয়া ফাজিল মাদ্রাসার শিক্ষক, কর্মচারি ও শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি বাধ্যতামূলক করা হয়। উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার বরাতে সংশ্লিষ্ট স্কুল-মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওই অনুষ্ঠানে যেতে নির্দেশ দেয়া হয়। আর এ কারণে অনিচ্ছা সত্ব্যেও ওইসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মকর্তা ও ছাত্র-ছাত্রীদের অনেকটা চাপের মধ্যে ওই সংবর্ধণা অনুষ্ঠানে যেতে বাধ্য হন। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ক্লাশ কার্যক্রম বন্ধ রেখে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সংবর্ধণা অনুষ্ঠানে যেতে বাধ্য করার অভিযোগ সরাসরি অস্বীকার করে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) কাজী মনিরুজ্জামান রিপণ বলেন, কলেজ কর্তৃপক্ষ আমন্ত্রণ জানালে একদু’জন শিক্ষক সেই অনুষ্ঠানে যেতে পারেন। তবে কাউকে বাধ্যতামূলক যেতে হবে এমন নির্দেশনা দেয়া হয়নি।

এমআর

বাংলাদেশ সময়: ২১:০৪:১৯ ● ১৫ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ