কলাপাড়া হাসপাতালে করোনা টেষ্টের নামে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগ

প্রথম পাতা » পটুয়াখালী » কলাপাড়া হাসপাতালে করোনা টেষ্টের নামে অতিরিক্ত টাকা আদায়ের অভিযোগ
বুধবার ● ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১


 

প্রতীকী ছবি

কলাপাড়া সাগরকন্যা অফিস॥ 

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে করোনার স্যাম্পল টেষ্ট করার সময় অবৈধভাবে জনপ্রতি ১’শ টাকার স্থলে ২’শ টাকা আদায় করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের ল্যাব সহকারী মোসা. লাকী আক্তারের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত এ টাকা নেয়ার অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগীরা।

অভিযোগকারী মো. মিলন তালুকদার জানান, তিনিসহ তার স্ত্রী ও ছেলে করোনা সংক্রমিত হয়েছে কিনা পরীক্ষার জন্য পর্যায়ক্রমে হাসপাতালের ল্যাবে রক্ত দেন। এতে সরকারি নিয়ম অনুযায়ী জনপ্রতি ১০০ টাকা করে নির্ধারণ করা হলেও হাসপাতালের ল্যাব সহকারী মোসা. লাকী আক্তার অতিরিক্ত আরও ১০০ টাকা করে আদায় করেছে। কেউ দিতে অস্বীকার করলে উল্টো তাদের সাথে খারাপ আচরণসহ স্যাম্পল টেষ্টে না পাঠিয়ে ফেলে দেয়ার হুমকি দেয়। এভাবে কয়েক লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে তিনি ধারনা করছেন।

অভিযুক্ত মিলন তালুকদার আরো জানান, তিনি একটি ল্যাবের মালিক হিসেবে এ স্বাস্থ্যকমপ্লেক্্েরর আরএমও ডা. জুনায়েদ হোসেন লেলিন তাকে টেষ্টের টাকা ফ্রি করে দেয়, অথচ তাকেও ঘুষের ওই টাকা দিতে বাধ্য করা হয়। তিনি  মান সম্মানের ভয়ে ঘুষের ওই টাকা পরিশোধ করেছেন বলে উল্লেখ করেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ল্যাব সহকারী মোসা. লাকী আক্তার অতিরিক্ত টাকা নেয়ার বিষয়টি প্রথমে অস্বীকার  করে। পরে তিনি  বলেন, আরএমও ডা. জুনায়েদ হোসেন লেলিনের সিলিপ অনুযায়ী এ টাকা নেয়া হয়।

এ ব্যাপারে আরএমও ডা. জুনায়েদ হোসেন লেলিন জানান, একটি চক্র জনপ্রতি ৪০০ টাকা থেকে ৫০০ টাকা করে আদায় করতো জেনে বিষয়টি উপজেলা স্বাস্থ্যকর্মকর্তার সাথে আলোচনা করে জরুরী মিটিং ডেকে তা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. চিন্ময় হাওলাদার জানান, সারকারি ১০০ টাকা ফি ব্যতীত কোন প্রকার অতিরিক্ত টাকা নেয়ার সুযোগ নেই। তবে কেউ নিয়ে থাকলে তদন্তপূর্বক তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

 

বাংলাদেশ সময়: ১৫:৫৬:১২ ● ৮৬ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ