ছাতকে বিদ্যুৎ’র গ্রাহক হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন

প্রথম পাতা » ব্রেকিং নিউজ » ছাতকে বিদ্যুৎ’র গ্রাহক হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন
বুধবার ● ৯ জুন ২০২১


ছাতকে বিদ্যুৎ’র গ্রাহক হয়রানির প্রতিবাদে মানববন্ধন

ছাতক(সুনামগঞ্জ) সাগরকন্যা প্রতিনিধি॥

ছাতকে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের গ্রাহক হয়রানি, অনিয়ম, ঘুষ গ্রহণ, মিটার চুরি, প্রতারণা ও দূর্নীতির প্রতিবাদে এবং নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ আল মামুন সরদারের অপসারণের দাবীতে এক মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন ভুক্তভোগী এলাকাবাসী। বুধবার সকালে ভূক্তভোগী গ্রাহকবৃন্দের ব্যানারে ছাতক ওয়াপদা অফিসের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। ব্যবসায়ী কামরুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, ইউপি সদস্য সালেহ আহমদ, ব্যবসায়ী আব্দুল হাই লায়েক, গ্রাহক আলী হোসেন, মিজানুর রহমান মিজান, সানাউর রহমান লাল, সুলেমান মিয়া, মিলাদ হোসেন, মমিন মিয়া, বাপ্পী হোসেন, শিপন মিয়া, আব্দুল করিম, সেলিম মিয়া, জাহির মিয়া, রাসেল মিয়া, পাবেল আহমদ, শাহিন মিয়া, লায়েক আহমদ, রকি মিয়া, জেনিস আহমদ, সুন্দর আলী, রাজ্জাক আহমদ, সুজন মিয়া প্রমুখ। এসময় ভুক্তভোগী গ্রাহকবৃন্দ ও পুলিশ প্রশাসনের লোকজন উপস্থিত ছিলেন। বক্তারা বলেন, বিভিন্নভাবে গ্রাহক হয়রানি ও  ঘন ঘন লোডশেডিংয়ের কারণে অতিষ্ঠ গ্রাহকরা। রাতে বিদ্যুৎ চলে গেলে পরদিন দুপুরেও আসার সম্ভাবনা থাকে না। অফিস কর্মচারীদের গাফিলতির কারণে এসব হরহামেশাই ঘটে যাচ্ছে। নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ আল মামুন অফিসের উপ-সহকারি প্রকৌশলী আবুল হো‌সেন ও ফজলে রাব্বির মাধ্যমে ঘুষ বানিজ্যে মেতে উঠেছেন। মিটার রিডারদের এলাকায় না দিয়ে গ্রাহকদের নামে তিনি মনগড়া বিল দিয়ে যাচ্ছেন। মামলার ভয় দেখিয়ে সাধারণ গ্রাহককে করছেন হয়রানি। ট্রান্সফরমার ও বাসা-বাড়ির মিটার নষ্ট হলে গ্রাহকরা অফিসে আসলে টাকা দিয়েও  হয়রানির স্বীকার হতে হয় মাসের পর মাস। গ্রাহকরা নতুন মিটারের জন্য অফিসে আবেদন করলে অফিসে মিটার নেই বলে দেয়া হয়। অথচ অফিসের কর্মকর্তারাই মিটার চুরি করে কৌশলে গ্রাহকদের কাছে বিক্রি করছেন। ঝড় বৃষ্টির সময় অনেক দুর্ঘটনা ঘটে, এসব দুর্ঘটনার খবর গ্রাহকরা মোবাইল ফোনে কর্তৃপক্ষকে জানাতে পারেনা। বিদ্যুৎ অফিসের কেউ তখন ফোন রিসিভ করেন না। দিনে দিনে এখানে গ্রাহক হয়রানী বৃদ্ধি পাচ্ছে। বক্তারা বিদ্যুৎ বিভাগের এসব দুর্নীতি ও হয়রানি বন্ধে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করেন।


এএমএল/এমআর

বাংলাদেশ সময়: ২১:৩৯:৫৬ ● ৮০ বার পঠিত




পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

আর্কাইভ