মেম্বারদের অনাস্থা প্রস্তাবের পর
ডোমারের ভোগডাবুরী ইউপি চেয়ারম্যান একাই পরিষদে!
হোমপেজ » অপরাধ-দুর্নীতি » ডোমারের ভোগডাবুরী ইউপি চেয়ারম্যান একাই পরিষদে!


মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

ভোগডাবুরী ইউনিয়ন পরিষদে!

ডোমার (নীলফামারী) সাগরকন্যা প্রতিনিধি ॥
ডোমার উপজেলার  ভোগডাবুরী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বিরুদ্ধে গতমাসে ১১ জন সসদ্য ও সদস্যা অনাস্থা প্রস্তাব দাখিলের পর ইউনিয়ন পরিষদটি দীর্ঘদিন থেকে ইউপি সদস্য বিহীন হয়ে পড়েছে। ইউপি সদস্যরা পরিষদে না যাওয়ায় কারনে ইউনিয়নবাসী পরিষদের দৈনন্দিন কার্যক্রমের সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। বিভিন্ন ওয়ার্ডের ওইসব সদস্যরা জানান, অভিযোগ করাও সত্বেও সংস্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কোন পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় তারা ইউনিয়ন পরিষদে যাচ্ছেন না। ফলে অকার্যকর একটি ইউনিয়ন পরিষদে পরিনত হয়েছে ভোগডাবুরী ইউনিয়ন পরিষদটি।
জানা গেছে, উপজেলার ভোগডাবুরী ইউপি চেয়ারম্যান একরামুল হকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন প্রকল্পের টাকা আত্মসাত ও ব্যাপক অনিয়ম, দুর্নীতির অভিযোগ তুলে ১১ জন ইউপি সদস্য ২৩ জানুয়ারি জেলা প্রশাসকের কাছে অনাস্থা প্রস্তাব দাখিল করেন। উক্ত তারিখ থেকে পরিষদের সকল কার্যক্রম থেকে বিরত থাকেন ইউপি সদস্যরা।
ইউপি সদস্যরা আরও জানান, ইউনিয়নের জনগণ পরিষদে গিয়ে তাদের নির্বাচিত সদস্য সদস্যাদের না পেয়ে হতাশ হয়ে ফিরে আসছেন। ইউপি সদস্যরা না থাকায় এই পরিষদটি চেয়ারম্যান, একজন ইউপি সদস্য, সচিব, গ্রাম পুলিশ দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে।
এছাড়া, ইউপিতে প্রায় দেড় বছর থেকে গ্রাম আদালত বন্ধ রয়েছে। যার ফলে ভোগডাবুরীর সাধারণ মানুষ গ্রাম আদালতের বিচার থেকে বঞ্চিত রয়েছেন।
৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শহিদুল ইসলাম বলেন, চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা অভিযোগ দায়েরের পর চেয়ারম্যান তার লোকজন নিয়ে এক ইউপি সদসস্যের গায়ে হাত তুলতে যায়। আমাদের দায়েরকৃত অভিযোগ ও লাঞ্ছিত করার সু-বিচার না পাওয়া পর্যন্ত পরিষদে ফিরছি না।
ভোগডাবুরী ইউপি চেয়ারম্যান একরামুল হক বলেন, আমার নামে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অতিরিক্ত টাকা নেওয়ার প্রশ্নই আসেনা। ইউপি সদস্যরা পর্যায়ক্রমে পরিষদে আসে এবং জন্ম নিবন্ধন স্বাক্ষর করছে।

বিআইজে/এনইউবি


বাংলাদেশ সময়: ০৩:৩৩:৩৯ পিএম | ৮১ বার পঠিত


পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)

পুরনো খবর দেখতে:



---

আরো পড়ুন...